PMI রিপোর্টকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা বাড়ছে ব্রিটিশ পাউন্ডে

- Advertisement -

 টানা কয়েক দিন ব্রিটিশ পাউন্ড মার্কিন ডলারের বিপরীতে সীমিত আকারে মুভ করছে,সপ্তাহের শুরুতে পেয়ারটি সর্বোচ্চ ১.৩৭৭৪  প্রাইসে উপরে উঠলেও পরবর্তীতে পেয়ারতিত প্রাইস কমতে থাকে এবং পেয়ারটি এ সপ্তাহের সর্বনিম্ম ১.৩৫৭০ প্রাইসে হিট করেছে, বর্তমানে প্রাইস কিছুটা বেঁড়ে ১.৩৭৩০ এ কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে।

ক্রেডিট সুইস অ্যানালাইসিস্ট টিম এবং কমার্জব্যাংক অ্যানালাইসিস্ট অ্যাক্সেল ‍রুডলফ GBPUSD পেয়ারের পরবর্তী শক্ত সাপোর্ট নির্ধারণ করেছে ১.৩৭৩৫।তাদের মতে পেয়ারটি সামনের সপ্তাহে  ১.৩৭৩৫ থেকে ১.৩৯০০ প্রাইসের মধ্যে উঠানামা করবে।আজও  পেয়ারকে প্রভাবিত করার মতো বেশ কিছু ইভেন্ট রয়েছে দুপুর ২.৩০ এ প্রকাশিত হবে Flash Manufacturing PMI,Flash Services PMI এছাড়া    এছাড়া সন্ধ্যা ৭.৪৫ এ প্রকাশিত হবে মার্কিন Flash Manufacturing PMI ,,Flash Services PMI মার্কিন পিএমআই পজেটিব আসার সম্ভাবনা রয়েছে।এটা পাউন্ডের  মুভমেন্টের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখতে পারে।

ফেডারেল রিজার্ভের প্রধান তার বক্তব্যে বলেন, ২০২৩ সালের আগে ইন্টারেস্ট রেট দুবার বৃদ্ধি করা হতে পারে।  কারেন্সি কৌশলবিদের মতে, ফেড সেপ্টেম্বর বা অক্টোবরের বৈঠকে উপযুক্ত পদক্ষেপ ঘোষণার মধ্য দিয়ে নভেম্বর বা ডিসেম্বরে তা পর্যায়ক্রমে শুরু করবে।  এ ধরনের অবস্থানকে কেন্দ্র করে পাউন্ডের বিপরীতে মার্কিন ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে।

 পেয়ারটি গতকালের সর্বনিন্ম প্রাইস ১.৩৬৯০ এর নিচে আসলে ডাউনট্রেন্ড পুনরায় শক্তিশালী হতে পারে।  সেক্ষেত্রে পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে ২০ জুলাই এর সর্বনিন্ম প্রাইস ১.৩৫৭০।ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ২৩.৬% অনুযায়ী পেয়ারটির পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স  ১.৩৭৮০।

- Advertisement -

সাম্প্রতিক

- Advertisement -

Related news

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here