৫ সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইসে ব্রিটিশ পাউন্ড

- Advertisement -

টানা কয়েকদিন ধরে মার্কিন ডলারের বিপরীতে পাউন্ড শক্ত অবস্থানে রয়েছে গতকালের আর্টিকেলে আমরা উল্লেখ করেছি যে এফএমসি মিটিং কে কেন্দ্র করে ডলারের প্রাইস কিছুটা কমতে পারে সেক্ষেত্রে ব্রিটিশ পাউন্ড অতিরিক্ত সুবিধা পাবে, আজ বৃহস্পতিবার পেয়ারটি ১.৩৮৯২ প্রাইসে ওপেন হলেও পরবর্তীতে এফএমসি মিটিং কে কেন্দ্র করে পেয়ারটি ৫ সপ্তাহের সর্বোচ্চ ১.৩৯৩৮ প্রাইসে উঠে এসেছে, এদিকে  যুক্তরাজ্যে মুক্ত চলাচল এবং ব্রেক্সিট উদ্বেগ নিরসনের জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমন নীতি-নির্ধারকদের বিবেচনায় আসার সাথে সাথে ব্রিটিশ পাউন্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে।বিনিয়োগকারীরা মুদ্রাস্ফীতি সম্পর্কে ফেডের অবস্থানের মূল্যায়ন করেছেন কারণ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের শীর্ষ অগ্রাধিকার হল অর্থনৈতিক বৃদ্ধি এবং শ্রমবাজারের উন্নতি।  মার্কিন ফেড চেয়ারম্যান জেরেমি পাওয়েল আবারও মুদ্রাস্ফীতির ঝূঁকি হ্রাস করেছেন।

আজও পেয়ারটিকে প্রাভাবিত করার মতো বেশি কিছি নিউজ আছে দুপুর ২.৩০ প্রাকাশিত হবে M4 Money Supply m/m, Mortgage Approvals, Net Lending to Individuals m/m ,এছাড়া সন্ধ্যা ৬.৩০ এ প্রকাশিত হবে মার্কিন Advance GDP q/q, Advance GDP Price Index q/q,Unemployment Claims। 

জুন মাসের Advance GDP q/q ৬.৪% আসলেও জুলাই তা বেঁড়ে ৮.৫% আসার সম্ভাবনা রয়েছে যার কারনে পাউন্ডের বিপরীতে ডলার আজ শক্তিশালী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

পেয়ারের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স লেভেল ১.৩৯৭০।  পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে ১.৪০০০।

অপরদিকে পেয়ারের প্রাইস কমতে শুরু হলে ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ৬১.৮% অনুযায়ী ১.৩৮৯০ আসতে পারে। পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে এ সপ্তাহের নিন্ম প্রাইস ১.৩৭৩৬।

- Advertisement -

সাম্প্রতিক

- Advertisement -

Related news

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here