PMI রিপোর্টকে কেন্দ্র করে GBPUSD পেয়ারের প্রাইস বাড়ছে

- Advertisement -

কয়েক সপ্তাহ ধরে ব্রিটিশ পাউন্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পেলেও গত সপ্তাহে তার উল্টো চিত্র প্রকাশ পায়,পেয়ারটি এক সপ্তাহের ব্যাবধানে ডাউনট্রেন্ডে চলে আসে।পেয়ারটি ১ জুন সর্বোচ্চ ১.৪২৪৮ প্রাইসে হিট করলেও পরবর্তীতে পেয়ারের প্রাইস কমে ১.৩৮০০ প্রাইসের নিচে চলে আসে। এ সপ্তাহ থেকে পেয়ারটি আবারো আপট্রেন্ডে আসার চেষ্টা করছে।সপ্তাহের শুরুতে ১.৩৮০৫ প্রাইসে ওপেন হলেও বর্তমানে পেয়ারটির দাম বৃদ্ধি পেয়ে ১.৩৯৭৫ প্রাইসের কাছাকছি মুভ করছে।

আজ পেয়ারটিকে প্রভাবিত করার মত বেশ কিছু নিউজ আছে। দুপুর ০২:৩০ এ প্রকাশিত হবে জুন মাসের ব্রিটিশ ফ্ল্যাশ মেনুফেকচারিং পিএমআই এবং  ফ্ল্যাশ সার্ভিস পিএমআই। মে মাসে বিটিশ মেনুফেকচারিং পিএমআই বৃদ্ধি পেয়ে ৬৪.১ পয়েন্ট এসেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে,  জুন মাসে বৃদ্ধি পেয়ে ৬৫.১ পয়েন্ট আসতে পারে।

এছাড়া সন্ধ্যা ৭.৪৫ প্রকাশিত হবে মার্কিন ফ্ল্যাশ মেনুফেকচারিং পিএমআই রিপোর্ট। মে মাসে মার্কিন মেনুফেকচারিং পিএমআই বৃদ্ধি পেয়ে ৬১.৫ পয়েন্ট এসেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে,  জুন মাসে বৃদ্ধি পেয়ে ৬২.১ পয়েন্ট আসতে পারে  যা পেয়ারকে প্রভাবিত করতে পারে। । । প্রত্যাশা করা হচ্ছে  রিপোর্টটি ব্রিটিশ পাউন্ডের প্রাইস বাড়তে অথবা কমাতে সহায়তা করতে পারে।

পেয়ারের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স লেভেল ১.৪০১০। তবে ১.৪০১০  রেজিস্ট্যান্স ক্রস করলে পেয়ারটির পরবর্তী টার্গেট হতে পারে ১.৪১০০।

অপরদিকে পেয়ারের প্রাইস কমতে শুরু হলে পেয়ারটির পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে ১.৩৯০০। 

- Advertisement -

সাম্প্রতিক

- Advertisement -

Related news

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here