ব্রিটিশ পাউন্ড কি তার আপ্ট্রেন্ড ধরে রাখতে পারবে?

- Advertisement -

গত কয়েকদিন ধরে মার্কিন ডলারের বিপরীতে ব্রিটিশ পাউন্ডের প্রাইস কমছে,আজকে এশিয়ান সেশনে পেয়ারটির দাম কমে সর্বনিম্ম ১.৩৮৫০ প্রাইসের কাছাকাছি নেমেছে।বর্তমানে মার্কিন অর্থনৈতি শক্তিশালী হওয়ার কারনে ব্রিটিশ পাউন্ড তার শক্ত অবস্থান তৈরি করতে পারছে না যার কারনে এপ্রিলের শেষ দিকে পেয়ারটির প্রাইস বাড়লেও খুব বেশি সময় আপ্ট্রেন্ড ছিলো না বর্তমানে পেয়ারটি ১.৩৮৬০ এ অবস্থান করছে।

ছবি সুত্রঃ fxempire

ফেড কর্মকর্তা বোস্টন এরিক রোজেনগ্রেন বলেছেন আর্থিক খাতের নীতিমালার কারণে মার্কিন অর্থনীতি এই বছর উল্লেখযোগ্য প্রত্যাবর্তন দেখাতে পারে।আজও বেশ কিছু নিউজ আছে যা পেয়ারটিকে প্রভাবিত করতে পারে এছাড়া ব্রিটিশ মেনুফেকচারিং ডাটা কে কেন্দ্র করে পাউন্ডের দাম বেড়তে পারে সেক্ষেত্রে পেয়ারটি ১.৩৯০০ প্রাইসের কাছাকাছি যেতে পারে।

ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ৫০% অনুযায়ী পেয়ারের পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে ১.৩৯০০।  পেয়ারটি ১.৩৯০০ রেজিস্ট্যান্স অতিক্রমের করতে পারলে পরবর্তীতে ১.৩৯৪০ এবং ১.৩৯৫৫ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে আসতে পারে।

অপরদিকে ব্রিটিশ পাউন্ড পেয়ারটির  পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে  ১.৩৮৫০। ১.৩৮৫০ নিচে আসলে প্রাইস আরো কমবে। সেক্ষেত্রে পরবর্তী টার্গেট হবে ১.৩৮০০।

- Advertisement -

সাম্প্রতিক

- Advertisement -

Related news

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here