১.৩৭৮০ সাপোর্টে আসতে পারে ব্রিটিশ পাউন্ড

- Advertisement -

গত  সপ্তাহে প্রথম দিকে  মার্কিন ডলারের বিপরীতে পাউন্ডের দাম কমছিল বেশ ভালো ভাবে পেয়ারটি ৫ মাসের সর্বনিম্ম প্রাইসে  হিট করছে।পেয়ারটি কয়েকদিনের ব্যাবধানে ডাউনট্রেন্ডে চলে আসলেও বর্তমানে পেয়ারটি আবারো আপট্রেন্ডে দিকে যাচ্ছে ।গতকাল সপ্তাহের প্রথম দিনে পেয়ারটি ১.৩৭৫০ প্রাইসে ওপেন হলেও পরবর্তীতে পেয়ারটির দাম বাড়তে থাকে এবং নিউইয়াক সেশনে পেয়ারটি সর্বোচ্চ ১.৩৮৩৫ প্রাইসে হিট করে।

চার ঘন্টার চার্ট অ্যানালাইসিস করে গত শুক্রবার পাউন্ড নিয়ে আমাদের আর্টিকেলে আমরা বলেছিলাম GBPUSD ১.৩৮০০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে আসতে পারে।প্রত্যাশা অনুযায়ী পেয়ারটি ১.৩৮০০ প্রাইস অতিক্রম করেছিল।

আজ মঙ্গলবার সাপ্তাহের দ্বিতীয় দিনেও পেয়ারটি আপ্ট্রেন্ড ধরে রেখছে,আজ এশিয়ান সেশনে পেয়ারটি সর্বোচ্চ ১.৩৮৩০ প্রাইসে হিট করে ,বর্তমানে পেয়ারটির প্রাইস কিছুটা কমে ১.৩৮১৫ প্রাইসে কাছাকাছি মুভ করছে।

আজও পেয়ারটিকে প্রভাবিত করার মতো বেশ কিছু নিউজ আছে দুপুর ৪টায় প্রকাশিত হবে  CBI Realized Sales  এছাড়া সন্ধ্যা ৬.৩০ প্রকাশিত হবে মার্কিন  Durable Goods Orders m/m, Durable Goods Orders m/m, এছাড়া রাত ৮ টায় CB Consumer Confidence প্রকাশিত হবে যা পেয়ারটিকে প্রভাবিত করবে।কমার্জব্যাংক অ্যানালাইসিস্ট কারেন জনসের মতে, পেয়ারটি আবারো ১.৩৮০০ প্রাইস ব্রেক করে নিচে নামতে পারে।  সেক্ষেত্রে  সেলারদের টার্গেট হতে পারে ১.৩৭৮০।  কারণ পেয়ারটি ১.৩৮০০ প্রাইসের নিচে আসলে বিয়ারিশের সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে।

অপরদিকে পেয়ারের আপট্রেন্ড পুনরায় শক্তিশালী হলে ৫৫ দিনের মুভিং অ্যাভারেজ অনুযায়ী  পেয়ারটি ১.৩৮৫০ রেজিস্ট্যান্স অতিক্রম করতে পারে, পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স গুলো যথাক্রমে ১.৩৯০০, ১.৩৯৫০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে আসতে পারে।

- Advertisement -

সাম্প্রতিক

- Advertisement -

Related news

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here