জুলাইয়ের সর্বনিম্ম প্রাইসের দিকে যাচ্ছে – EURUSD

- Advertisement -

টানা সাতদিনের মতো পেয়ারটি ডাউনট্রেন্ডে অবস্থান করছে, এ মাসের শুরুতে পেয়ারটি সর্বোচ্চ ১.১৯০০ প্রাইসের উপরে থাকলেও পরবর্তীতে মার্কিন ডাটা এন এফ পি নিউজকে কেন্দ্র করে পেয়ারটির দাম কমতে শুরুম করে বর্তমানে পেয়ারটির দাম কমে ১.১৭৮০ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে।

কমার্জব্যাংক অ্যানালাইসিস্ট টিমের প্রধান কারেন জনসনের মতে, EURUSD পেয়ার ১.১৭৮০ প্রাইসের নিচে আসলে জুলাইয়ের সর্বনিম্ম ১.১৭৫১ প্রাইসে যেতে পারে।পেয়ারের ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী হলে EURUSD মার্চ মাসের নিন্ম প্রাইস ১.১৭০৪ আসতে পারে,  ২০০ সপ্তাহের মুভিং অ্যাভারেজ অনুযায়ী পেয়ারের প্রাইস কমে ২০২০ সালের নভেম্বরের নিন্ম প্রাইস ১.১৬০২ যেতে পারে।

বেশ কয়েকদিন মার্কিন ডলার ৯৩.০০ প্রাইসের উপরে অবস্থান করছে, জ্যাকসন হোল সিম্পোজিয়ামে ফেড চেয়ারম্যান জেরেমি পাওয়েলের মন্তব্যকে কেন্দ্র করে ডলারের প্রাইস কিছুটা কমে  ৯২.৮০ প্রাইসে  অবস্থান করছে। এছাড়াও ফ্রান্স এবং যুক্তরাজ্যে কোভিড-১৯ এর বৃদ্ধি মার্কেটে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি করছে।  যা নিরাপদ কারেন্সি হিসেবে ডলারের চাহিদা বাড়িয়ে দিচ্ছে।

পেয়ার ২০ DMA ১.১৮০০ প্রাইসের নিচে অবস্থান করছে। সুতরাং ১.১৮০০ প্রাইস অতিক্রম করলে বায়ারদের সুযোগ রয়েছে। পেয়ারটি ১.১৮২০ প্রাইস অতিক্রমে আপট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে সেক্ষেত্রে ১.১৯০০ প্রাইসে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে।

- Advertisement -

সাম্প্রতিক

- Advertisement -

Related news

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here