মার্কিন জিডিপি ব্রিটিশ পাউন্ডকে প্রভাবিত করতে পারে

- Advertisement -

মার্কিন ডলারের বিপরীতে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে GBPUSD পেয়ারটির দাম বৃদ্ধি পেলেও এ সপ্তাহের শুরু থেকে পেয়ারটি প্রাইস কমতে শুরু করেছে। এর ফলে পেয়ারটি ফেব্রুয়ারি মাসের সর্বোচ্চ প্রাইস ১.৪২৩৮ প্রাইস ক্রস করতে পারে নি। বর্তমানে পেয়ারটি ১.৪১১৬ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে।

আজকের সেশনে পাউন্ড বিনিয়োগকারীদের নজর মার্কিন জিডিপির দিকে।আজ পেয়ারটিকে প্রভাবিত করার মতো বেশ কিছু নিউজ আছে। সন্ধ্যায় ৬.৩০ প্রকাশিত হবে Prelim GDP q/q,Unemployment Claim্‌ Prelim GDP Price Index q/q, এছাড়া রাত ৮  টায় প্রকাশিত হবে Pending Home Sales m/m, Natural Gas Storage।

এদিকে বেশ কিছুদিন ধরে মার্কিন ডলার  শক্তিশালী হওয়ার চেষ্টা করছে।  এর ফলে পেয়ারটি দ্বিতীয় দিনের মতো আপট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছে। মার্কিন ট্রেজারি বন্ড রিপোর্টের সামান্য উত্থানের মধ্যে মার্কিন ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। বিশেষজ্ঞদের মতে মার্কিন জিডিপি কে কেন্দ্র করে মার্কিন ডলারের বিপরীতে ব্রিটিশ পাউন্ডের প্রাইস কিছুটা কমতে পারে। সেক্ষেত্রে GBPUSD পেয়ারটির আজ বেশ ভালো মুভমেন্ট আশা করা যাচ্ছে।

RSI ইনডিকেটর অনুযায়ী পেয়ারটি ডাউন সাইডে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।GBPUSD ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে পেয়ারটি ১.৪০৮০ প্রাইস অতিক্রম করে আরো কমতে পারে। পেয়ারের পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে ১.৪০৫০।
পেয়ারটি ১.৪২০০ প্রাইস অতিক্রমে সক্ষম হলে পুনরায় আপট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে।  পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে ১.৪২৩৫।

- Advertisement -

সাম্প্রতিক

- Advertisement -

Related news

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here