মার্কিন ডলারের বিপরীতে ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছে ব্রিটিশ পাউন্ড

- Advertisement -

টানা কয়েক সপ্তাহে ধরে  GBPUSD পেয়ারের প্রাইস কমছে গতকাল পেয়ারটি ৪ সপ্তাহের সর্ব নিম্ম ১.৩৬৪০ প্রাইসে হিট করে, পেয়ারটি এ মাসের সর্বনিন্ম ১.৩৬৪০-তে আসলেও আজ মঙ্গলবার রিকভারের চেষ্টা করছে।আজ পেয়ারটি ১.৩৬৪৯ প্রাইসে ওপেন হলেও পরবর্তীতে দাম বেঁড়ে ১.৩৬৮২ প্রাইসে হিট করে বর্তমানে পেয়ারটি ১.৩৬৭৮ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে।

আমরা আমাদের পূর্বের আলোচনায় উল্লেখ করেছি যে কমার্জব্যাংক অ্যানালাইসিস্ট কারেন জনসের মতে, GBPUSD পেয়ার ১.৩৭৩০ অতিক্রম করলেও ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী হবে সেক্ষেত্রে পেয়ারটি ১.৩৬৫০ সাপোর্ট প্রাইসে আসতে পারে। বর্তমানে পেয়ারটি উল্লেখিত সাপোর্টে হিট করেছে এদিকে শক্তিশালী মার্কিন রিটেইল সেলস ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি করছে।তৃতীয় সপ্তাহ মার্কিন ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত সপ্তাহের ডলারের প্রাইস ৬০ পিপসের মতো বেড়েছে। এ সপ্তাহে মার্কিন FOMC প্রেস কনফারেন্স গুরত্বের সাথে দেখা হচ্ছে। গত সপ্তাহে মার্কিন ইকোনমিক ডাটাগুলো দ্বন্দপূর্ণ থাকা সত্ত্বেও সপ্তাহ শেষে ডলার আপট্রেন্ডে ক্লোজ হয়েছিল।ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমানে ৯৩.৩৫ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে।এর ফলে পাউন্ডের প্রাইস কমতে শুরু করেছে। 

এছাড়া চীন-যুক্তরাষ্ট্রের উত্তেজনা এবং মার্কিন হাউস স্পিকার ন্যান্সি পিলোসির ৩.৫ ট্রিলিয়ন ডলার বিলের ব্যাপারে সতর্ক আশাবাদ ডলারের মুভমেন্টে প্রভাব ফেলেছে। ফ্রান্স এবং যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের ভ্রমণ নীতি সহজকরণ পাউন্ডকে প্রভাবিত করছে।

পেয়ারের আপট্রেন্ড শক্তিশালী হঅয়ার  ক্ষেত্রে  ১.৩৭২০ রেজিস্ট্যান্স ক্রস করা জরুরি।  পেয়ারের পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে ১.৩৭৮০।

- Advertisement -

সাম্প্রতিক

- Advertisement -

Related news

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here